Western Journalism Ethics । Are they Suitable for muslim Journalism?

Western Journalism Ethics : Are they Suitable for muslim Journalism?

 

JOURNALISM ETHICS 

সাংবাদিকতার নীতি ও ঐতিহ্যগুলো সাংবাদিকতার নিয়ম ও গাইডলাইন , যেমন – তথ্য জ্ঞাপন, সংবাদের বস্তুনিষ্ঠতা প্রভৃতি বিষয় দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় । সাংবাদিকতা চর্চার সাথে যুক্ত বিষয়গুলোও এক্ষেত্রে একি সাথে আলোচিত হতে পারে । এ বিষয়গুলো হল – বস্তুনিষ্ঠতার প্রয়োজনীয়তা , ভুল ও ভুল সংশোধন , গোপনীয়তা , রিপোর্টার – সোর্স সম্পর্ক, প্রতারণা ,সহানুভূতি প্রভৃতি।


শিক্ষাগত যোগ্যতা ও প্রশিক্ষণের বিষয়টি সাংবাদিকদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ । গণমাধ্যম আইন ও নীতিমালার উপর অবশ্যই এ সকল বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করবেন । কোর্সগুলো করার মাধ্যমে সাংবাদিকদের বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং সংবাদ রিপোরটি্ং এর ক্ষেত্রে সহায়ক  ভূমিকা পালন করবে ।
এ দ্বারা একজন সাংবাদিক একটি ভারসাম্যপূর্ণ  ও সুন্দর সংবাদগল্প তৈরি করতে পারবেন ।
 
Western Journalism Ethics
 


MEDIA ETHICS OF GREAT BRITAIN


The British Nationalism of Journalist (NUJ
) ১৯৯৪ সালের ২৯ জুন একটি নীতিমালার কোড তৈরি করে। এ কোডটি প্রত্যাশিত ১২ টি নীতি দ্বারা গঠিত।


এ নীতিগুলো দ্বারা সাংবাদিকগণ সর্বোচ্চ পেশাদারি এবং নৈতিক মান রক্ষা করবেন । এছাড়া গোপনীয়তা ,গোপন ক্যামেরা ও মাইক্রোফোন ব্যবহার , ফোনকল ,ডোর স্টেপিং প্রভৃতি বিষয়ে সতর্ক ও নৈতিক হতে হবে ।
বৃটেনে সম্পাদকদের নিজস্ব নৈতিকতার কোড রয়েছে । উদাহরণস্বরূপ, বৃটেনের মেডিকেল জার্নালের সাংবাদিকরা তাদের জার্নালে কি প্রকাশিত হবে তার জন্য দায়বদ্ধ। সম্পাদকরা তাদের পাঠক এবং লেখকদের সাথে কথা বলে ক্রমাগত পত্রিকার মান উন্নয়নের চেষ্টা করেন।
বৃটেনে The Press Complaints Commission এর Code of Practice রয়েছে । যেটি ১ ডিসেম্বর ১৯৯৯ সালে অনুমোদন দেওয়া হয় । এ কোড দ্বারা জনগণের আগ্রহের প্রতি বিবেচনা করে সংবাদ প্রকাশের প্রতি জোর দেওয়া হয় ।
 
Western Journalism Ethics

MEDIA ETHICS OF USA


সাংবাদিকদের প্রধান ভূমিকা হল জাতীয় স্বার্থ এবং কমিউনিটির স্বার্থ রক্ষা করা । তারা সংবাদ প্রচার করবেন কিন্তু সংবাদ তৈরি করবেন না । এছাড়া সাংবাদিকরা সংবাদ সংগ্রহ করবেন এবং তা অসৎভাবে উপস্থাপন করা থেকে বিরত থাকবেন ।
এ বিষয়গুলো হল যুক্তরাষ্টের সাংবাদিকতার নৈতিকতার নীতিমালার । যুক্তরাষ্টে সাংবাদিকদের জন্য কিছু মৌলিক নিয়ম এবং রেগুলেশন তৈরি করা হয় ।এগুলো হল :


1. Conflict of Interest
2. Fairness
3.Plagiarism and Credit
4. Taste


সাংবাদিকদের যতটা সম্ভব Conflict of Interest কে পরিহার করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয় ।
নিউজ সোর্স থেকে কোনরূপ উপহার গ্রহণ, ফ্রি ভ্রমণ , কোন ইভেন্টে ফ্রি প্রবেশের অফার প্রভৃতি গ্রহণ না করতে বলা হয় । সাংবাদিদের কোনরূপ বিভেদমূলক কাজে যুক্ত হওয়া উচিত নয় ।ফেয়ারনেসের কথা বলতে গেলে সাংবাদিকদের বিষয়বস্তু এবং তার সাথে সম্পরকি্ত বিষয়ের প্রতি নৈতিক হতে উৎসাহিত করা হয় । অন্য কথায় তারা অবশ্যই পাঠকের প্রতি সৎ হবেন ।
প্লাগিরিজম বলতে , সাংবাদিকরা যে সকল উৎস থেকে তথ্য সংগ্রহ করেছেন ,সে সকল প্রকাশনাকে কৃতিত্ব দেওয়াকে বোঝায় । টেস্ট আমেরিকান সাংবাদিকদের অন্যতম নীতি । এক্ষেত্রে সাংবাদিকরা অবশ্যই উপযুক্ত বিষয়গুলোর প্রতি শ্রদ্ধাশীল হবেন ।


যুক্তরাষ্টে তাদের নিজস্ব সংবাদপত্র সম্পাদকদের সংঘ রয়েছে । একে American Society of Newspaper Editors (ASNE) বলা হয় । ASNE র ভাষ্যমতে, ১৯২২ সালে Cannons of Journalism নামে নীতিগুলো গৃহীত হয় । একে ১৯৭৫ সালে Statements of Principles নামে পুনরায় নামকরণ করা হয় ।
এখানে ছয়টি নীতির কথা বলা হয়েছে । যার্ উদ্দেশ্য হল ,আমেরিকার সাংবাদিক ও সাধারণ জনগণের মধ্যে বিশ্বাস ও শ্রদ্ধার দিকটি রক্ষা করা এবং তা আরো শক্তিশালী করে তোলা ।
 
 

MEDIA ETHICS OF AUSTRALIA


অস্টেলিয়ায় The Herald এবং Weekly Times এ তাদের পেশাগত অনুশীলনের নীতি রয়েছে । এ নীতিগুলো দ্বারা সাংবাদিকতার মৌলিক নীতিগুলো প্রতিফলিত হয় ।
Australian Journalists’ Association (AJA) এর নিজস্ব নীতিমালা রয়েছে । প্রধাণত সাংবাদিককে সৎ ,স্বাধীন, বৈধ এবং অন্যের অধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত ।
 


ISLAMIC ETHICS IN JOURNALISM


সংবাদ সংগ্রহের উপর ভিত্তি করে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ উপস্থাপন করা সাংবাদিকতার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় । সত্য সংবাদ তুলে আনার বিষয়টিও এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ।
২০০৬ সালে মোহা. ইউসুফ হোসেন সাংবাদিকতায় ইসলামি নীতির উপর আলোচনা করেছেন । একি সাথে সাংবাদিকদের মাঝে যে সকল বৈশিষ্ট্য থাকা উচিত তারও বর্ণনা দিয়েছেন।


এ বৈশিষ্টগুলো হল – ইহ্সান , তাকওয়া, জ্ঞান,সত্যবাদিতা,ক্ষমাশীলতা , অঙ্গীকার রক্ষা, সাহস,মনোযোগ, আল্লাহ্ ও রাসুলের প্রতি ভালোবাসা , মুসলিম উম্মাহর প্রতি অগ্রাধীকার ,সহনশীলতা প্রভৃতি । এছাড়া তিনি মুসলিম সাংবাদিকদের জন্য ১২ টি গাইডলাইনও তৈরি করেছেন ।
 


LESSONS FROM MUSLIM COUNTRIES


আরব সাংবাদিকদের জন্য ১৯৭২ সালের এপ্রিলে বাগদাদে একটি নীতিমালা তৈরি করা হয় । এ নীতিমালাগুলো তে পাশ্চাত্য নীতিমালার সাথে সাদৃশ্য দেখা যায় । এ সাদৃশ্যগুলো স্বাধীনতা,প্রগতি, আরব দেশগুলোর মধ্যে ঐক্য বস্তুনিষ্টতা প্রভৃতি বিষয় দেখা যায় । যেহেতু গণমাধ্যমের বার্তা পবিত্র, তাই এটি কোন অসৎ ,কুখ্যতি এবং অনৈতিক সুবিধার বিষয় হতে পারে না । আরব সাংবাদিকরা তথ্য এবং বিষয়গুলোর নৈতিক মান রক্ষা করে প্রকাশ করার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ ।
Western Journalism Ethics
 
 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*