4thYearGlobal Media and International CommunicationHighlights

নব্য উদারবাদ কি ? বিশ্বায়ন ও বৈশ্বিক মিডিয়ার সম্পর্ক

মো: সাইফুল ইসলাম:
 

নব্য উদারবাদ 


নব্য উদারবাদ বলতে বিভিন্ন সামাজিক ও অর্থনৈতিক ধারণা কে বোঝায় । এদ্বারা মুক্তবাজার অর্থনীতি ও তার উপর রাজনৈতিক প্রভাব না থাকার অবস্থাকে নির্দেশ করে ।নব্য উদারবাদকে কিছু অর্থনৈতিক ও কিছু রাজনৈতিক নীতির সেটও বলা হয় ।  নব্য উদারবাদের দুইটি দিক রয়েছে । যথা-

১. অর্থনৈতিক
২. রাজনৈতিক

অর্থনৈতিক বিবেচনায় নব্য উদারবাদ 
বলতে মুক্তবাজার  অর্থনীতিকে বোঝায় । আর রাজনৈতিক বিবেচনায় সেই মুক্তবাজারে রাষ্টের কোন ধরনের হস্তক্ষেপ না থাকার অবস্থাকে বোঝায় । নব্য উদারবাদে বলা হয় বাজারই সকল সমস্যার সমাধান করে দেয় । আর বাজারে রাষ্টের শাসন অনুভূত হবে না । বাজার তার নিজস্ব নিয়মে চলবে । যা কিছু সরকারি মালিকানায় আছে রাষ্ট  তা বেসরকারিকরণ করবে । একিসাথে  সরকারের কল্যাণমূলক ও সামাজিক সেবামূলক কর্মসূচিও কমে আসবে ।
শিকাগো স্কুল অব ইকোনোমিক্স এর অধ্যাপক মিল্টন ফ্রিডম্যান এই ধারণার প্রবর্তক । এবং এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির অর্থনীতিবিদগণ যারা শিকাগো বয়েজ নামে পরিচিত তারা এ ধারণার অন্যতম প্রচারক।

নব্য উদারবাদের সফল পরীক্ষা করা হয় চিলিতে ১৯৮০ সালে । পরবর্তীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এ পদ্ধতিতে অর্থনৈতিক সংস্কার করা হয় । সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর নব্য উদারবাদকে অপ্রতিরোধ্য বলে ধরে নেওয়া হয় । ফলে নব্বিইয়ের দশকে পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশ নব্য উদরিবাদকে স্বাগত জানায় ।
যুক্তরাষ্টে নব্য উদারবাদের ফলে ধনীরা আরো ধনী হচ্ছে ,আর গরিবরা আরো গরিব হয়ে পড়ছে ।  
 
নব্য উদারবাদ
 
 

 

বিশ্বায়ন ও বৈশ্বিক মিডিয়ার সম্পর্ক

 

বিশ্বায়ন ও মিডিয়াকে একি ডিসিপ্লিন হিসেবে অধ্যয়ন করা প্রয়োজন। কারণ, বিশ্বায়ন প্রক্রিয়ায় মিডিয়ার অবস্থান কেন্দ্রে । মিডিয়া কে একি সাথে বিশ্বায়নের কারণ ও ফলাফল বলা হয় । বিশ্বায়ন অধ্যয়নে অর্জুনা আপ্পাদুরাই একটি স্বীকৃতি নাম । তিনি বলেন , বিশ্বায়ন পাঁচটি প্রেক্ষাপট নিয়ে গঠিত এগুলো হল – নৃতাত্তিক, মিডিয়া ,প্রযুক্তি,আর্থিক এবং মতাদর্শিক প্রেক্ষাপট। তাঁর মতে , বিশ্বায়নে মিডিয়ার ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ । মিডিয়া বিশ্বায়ন প্রক্রিয়ার মূল পাঁচটি ধারণার ও চর্চার মধ্যে একটি । ইন্টারনেট এবং মিডিয়া না থাকলে অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক বিশ্বায়ন সম্ভব হতো না ।মিডিয়াই বিশ্বায়নকে বাস্তব করে তুলেছে ।

মার্শাল ম্যাকলুহান বলেছিলেন বা বাহনই বার্তা । তিনি বৈশ্বিকগ্রাম ধারণাটির প্রবর্তন করেন । তিনি মিডিয়ায় প্রচারিত বার্তা বা আধেয়ের চেয়ে মিডিয়াকেই বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করেছেন । 

নব্য উদারবাদের পূর্বে সাংবাদিকতা ছিল রাজনৈতিক আদর্শ নির্ভর । এরপর সাংবাদিকতা বস্তুনিষ্ঠতার দিকে গুরুত্বারোপ করে । বস্তুনিষ্ঠতার সময় পার করে আজ আমরা বিশ্বায়নের যুগে । এখন তথ্য নিতান্তই একটি পণ্য । আর মিডিয়া হল পণ্য পরিচিতিকরণ ও বিপণনের উপায় । রেডিও টেলিভিশনের মালিকানা একসময় সরকারের হতে ছিল । নব্য উদারবাদের আবির্ভাবের পর বেসরকারি রেডিও এবং কর্পোরেট মিডিয়ার উৎপত্তি ঘটে ।
 
Reference :
সর্বজনকথা, নভেম্বর ২০১৫. ফাহমিদুল হক , সহযোগী অধ্যাপক , গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিবিদ্যালয়



লেখক : শিক্ষার্থী
৪র্থ বর্ষ( ২১ তম ব্যাচ )
যোগাযোগওসাংবাদিকতা বিভাগ
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

Comment here