কেস স্টাডি কি?

অংকন চক্রবর্তী:
 
 

কেস স্টাডি কি

 
কেস স্টাডি হল একটি  গুণগত গবেষণা কৌশল।
কেস স্টাডি বলতে এমন একটি সমীক্ষা কে বোঝায় যা প্রাপ্ত ফলাফলের পিছনের গল্পকে বিশ্লেষণ ও সমন্বয় করে সকলের নিকট উপস্থাপন করে।
এটি একটি সমাজ গবেষণা ও অনুসন্ধানমূলক কৌশল যে খানে কোন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা কোন গোষ্ঠীকে একক হিসেবে বিবেচনা করা হয়।
কেস স্টাডি
 

যে কোন কেস স্টাডির জন্য তিনটি ধাপ অনুসরণ করে কাজ করা হয় । ধাপ গুলো হলো- সমস্যা চিহ্নিত করা,তথ্য সংগ্রহ এবং ফলাফল প্রকাশ।

কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কেস স্টাডি করতে গেলে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করতে হয়। এরপর সাক্ষাতকার গ্রহণ ও পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করতে হয়। এবং শেষে সংগ্রহীত তথ্য বিশ্লেষণ করার মাধ্যমে বর্ণনাত্মক ফলাফল উপস্থাপন করা হয়।

যেমন- একজন ব্যক্তির উপর স্টাডি করতে হলে ব্যক্তির নাম, ব্যক্তি কোথায় থাকে, ব্যক্তির যোগ্যতা, পেশা প্রভৃতি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করে ফলাফল তৈরির পর তা বিচার-বিশ্লেষণ করে উপস্থাপন করতে হবে।
 

সবশেষ,  কেস স্টাডির মাধ্যমে একজন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের অতীত জানা যায় এবং উক্ত বিষয়ে ভাল ধারণা নেওয়া যায়। তাছাড়া কেস স্টাডির মাধ্যমে পরবর্তী গবেষণা ক্ষেত্রও তৈরি করা যায়। 
অনেক সময় গবেষকদের বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যের প্রয়োজন হয়। কেস স্টাডির পদ্ধতি তে অনেক সময় গবেষকের প্রত্যাশার চেয়েও অধিক তথ্য পাওয়া যায়।। 


প্রামাণ্য সংজ্ঞা :

 

এটি হল সামাজিক এককের জীবন ধারা উদঘাটন ও বিশ্লেষণের একটি পদ্ধতি। সেই একক একজন ব্যক্তি , একটি পরিবার, প্রতিষ্ঠান , সাংস্কৃতিক দল বা গোত্র হতে পারে।


The Social Work Dictionary তে বলা হয়েছে,
 

কোন বাস্তব ঘটনাকে ব্যষ্টিক বিশ্লেষণ বলা হয়। এটি একটি গবেষণা পদ্ধতি, সামাজিক একক বিশ্লেষণ পদ্ধতি,। দীর্ঘ সময় ব্যাপী কোন দল, ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর সামগ্রিক অবস্থা কে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে বিশ্লেষণ করাকেই কেস স্টাডি বলা হয়। এটি একটি গুণগত, সর্বাত্মক, প্রগাঢ়, সর্বব্যাপী অন্তর্দৃষ্টি উদ্দীপক ও সর্বাত্মক প্রক্রিয়া হিসেবে চিহ্নিত ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*